• নাজমীন মর্তুজা
    ঐতিহ্য সচেতন কবি, কথাসাহিত্যিক ও গবেষক
  • প্রকাশিত কাব্যগ্রন্থ
    (১) গুরুপরম্পরা, (২) শ্রীরাধার উক্তি, (৩) মহামায়া কঙ্কাবতী, (৪) বাস্তবের লুকোচুরি, (৫) অপরূপার রূপকথা
  • প্রকাশিত গল্পগ্রন্থ
    নদীটির চন্দন জল
  • প্রকাশিত উপন্যাস
    নোনাজলের চোরাবালি
  • প্রকাশিত গবেষণাগ্রন্থ
    (১) ফোকলোর ও লিখিত সাহিত্য : জারিগানের আসরে ‘বিষাদ-সিন্ধু’ আত্তীকরণ ও পরিবেশন-পদ্ধতি, (২) বাংলাদেশের ঐতিহ্যবাহী বাদ্যযন্ত্র, (৩) বাংলাদেশের ফোকলোর, (৪) সাইদুর রহমান বয়াতি : সাধকের স্বদেশ ও সমগ্র, (৫) বাংলা পুথি সাহিত্য।
  • জন্ম :
    ১৫ মার্চ ১৯৭৭ খ্রিষ্টাব্দে, দিনাজপুর জেলার সেতাবগঞ্জ।
  • বর্তমানে তিনি স্বপরিবারে সাউথ অস্ট্রেলিয়াতে বসবাস করছেন।

নাজমীন মর্তুজা

নাজমীন মর্তুজা, দার্শনিক বোধ তাড়িত সময় সচেতন নিষ্ঠাবান কবি। চলমান বাস্তবতাকে ইতিহাস-ঐতিহ্যের পরম্পরায় জারিত করে তিনি কাব্য রূপান্তরে অভ্যস্ত। কাব্য রচনার পাশাপাশি ক্ষেত্রসমীক্ষাধর্মী মৌলিক গবেষণা ও কথাসাহিত্য সাধনায় তাঁর নিবেদন উল্লেখ করার মতো। গবেষণাকর্মের স্বীকৃতিস্বরূপ বাংলা একাডেমি থেকে প্রকাশিত ফোকলোর ও লিখিত সাহিত্যঃ জারিগানের আসরে "বিষাদ-সিন্ধু" আত্তীকরণ ও পরিবেশন পদ্ধতি শীর্ষক গ্রন্থের জন্য সিটি-আনন্দ আলো সাহিত্য পুরস্কার ২০১২ অর্জন করেছেন।
স্বদেশ–বিদেশ :  সমসাময়িক ভাবনা....

স্বদেশ–বিদেশ : সমসাময়িক ভাবনা....

লেখিকা স্বপরিবারে প্রবাসে বসবাস করলেও স্বদেশের প্রতি রয়েছে তার অন্যরকম ভালোবাসা। প্রবাসে থেকেও তিনি চর্চা করেন বাঙালির সংস্কৃতি। দূর প্রবাসে বসে স্বদেশের নানা উৎসবে মেতে ওঠেন পরিবার নিয়ে। শুধু তাই নয়, দেশের সমসাময়িক বিষয়ে সবসময়ই তিনি সোচ্চার থেকেছেন। লেখনির মাধ্যমে অন্যায়ের প্রতিবাদ করতে কখনো কুণ্ঠাবোধ করেনি তার কলম।

ক্লিক করুন

লেখিকার পরিবার

বর্তমানে তিনি স্বামী-সন্তান ও দুই কন্যাসহ সাউথ অস্ট্রেলিয়াতে বসবাস করছেন

নাজমীন মর্তুজা

লেখিকা

নাজমীন মর্তুজা

আবু আলী মর্তুজা রাসেল

স্বামী

আবু আলী মর্তুজা রাসেল

রিহান্না নারমিন মর্তুজা (রায়া)

বড় কন্যা

রিহান্না নারমিন মর্তুজা (রায়া)

আলিকা নাওয়ার মর্তুজা (রুহা)

ছোট কন্যা

আলিকা নাওয়ার মর্তুজা (রুহা)

এক ফ্রেমে পরিবার

এক ফ্রেমে পরিবার

গর্বিত সহযোগী

(সুসময় কিংবা দুঃসময় সব সময়ই পাশে পেয়েছি তাদের)

যোগাযোগ

(লেখিকা বর্তমানে স্বপরিবারে সাউথ অস্ট্রেলিয়াতে বসবাস করছেন)

Contact Information

ঠিকানা

অ্যাডিলেইড, সাউথ অষ্ট্রেলিয়া

ফেসবুক

https://fb.com/najmin.mortuza

ই-মেইল

[email protected]

কবিতা

নাজমীন মর্তুজা

ফেরিওয়ালা

কী কী বহন করো ফেরিওয়ালা একটি পাখির ডাক ও ভোর? আগুনের চিৎকার বিষণ্ন শ্মশান কোলাহল দিনের শুরু ও পতন? তুমি তো সকাল-দুপুর-সন্ধ্যার ফেরিওয়ালা। আচ্ছা… তোমার কাছে পথের পাশের বয়ে যাওয়াআরও পড়ুন

নির্বাচিত কবিতা

নাজমীন মর্তুজা

ডায়েরি

বিভা আজ সারাদিন তোমার ডায়েরি পড়লাম প্রতিটি পাতায় লিখে রাখা নিজেকে শেষ করে দেওয়ার বিষাদ খেয়াল স্মৃতিচারিতার সুতোয় গাঁথা একটা একটা দগ্ধ দিনের ফুল প্রায় বেয়াল্লিশটা বছরের কথা বড়ো কমআরও পড়ুন

নির্বাচিত কবিতা

নাজমীন মর্তুজা

কিছুটা ভাব সাবলীল সুখ

স্তন ছোঁবে খাজনা দেব না বলে যত অনুতাপ আগ্রাহ্য রইবো অফুরান, এই শহরে…. তারাগঞ্জ থেকে ইকরচালি দুপুর বাড়লে নসিমন স্ট্যাণ্ডে দাবি – দাওয়া নিয়ে দাঁড়াবো… কুকুর ছানাগুলোর জন্য রিলিফ দরকার।আরও পড়ুন

কবিতা

নাজমীন মর্তুজা

বসন্তের কোন ক্যালেন্ডার নেই

কিছু না করার ভয়াবহতায় আচ্ছন্ন আছি অনেকদিন তবে তোমাকে নিয়ে ভাবতে পারার তৃপ্তি শরীরের ছন্দে ছন্দে তোমার স্পর্শের দোলা প্রতি মুহূর্তে বইতে পারার সুখ সেটাই বা কম কি, মুহু মুহুআরও পড়ুন

কবিতা

নাজমীন মর্তুজা

সুড়ঙ্গ লালিত সম্পর্ক

এক অগাধ সমুদ্র কল্পনা করতে গিয়ে সমস্ত কল ছেড়ে দিয়ে দেখেছিলাম ,এক নতুন বিদ্রুপ। আপাত শিথিল ছন্দ নিয়ে যেন এক সূক্ষ্ম সংগীতের ধুন। জীবনকে এড়িয়ে গিয়ে অবক্ষয়জাত ক্লান্তির অধঃজাগতিক চেতনেরআরও পড়ুন

কবিতা

নাজমীন মর্তুজা

আয়ত বাঁচা

ব্যথার জলে খেয়া ভাসিয়ে পৌঁছে গিয়েছি তোমার বুকের পারঘাটায় গোমতী ধলেশ্বরীর বাঁধ ভেঙে ভাঙা বেড়া কুঁড়ে ঘর হাঁকরে মনস্তাপের গোলকধাঁধায়। বিকাশ গায়েন ডেকে যায় বাঁশির সুরে উঠে দাঁড়িয়ে পড়লাম যখনআরও পড়ুন

কবিতা

নাজমীন মর্তুজা

একাকী ঠোঁট

বলেছিলে… ঠোঁটের একটা তেল ছবি তুমি শুরু করেছিলে… আসলে আর জানা হয়নি শেষ হয়েছিল কিনা… আমার ঠোঁটের মহুয়া রস আর নেই বলে ঠোঁট দংশনে কারো বিষ উঠে যাক চাইনি….. তবুওআরও পড়ুন

কবিতা

নাজমীন মর্তুজা

দহন

তোমার মন পেতে অনেক অভিনয় করতে হলো তাই বদলে নিয়েছি দিনলিপি অপ্রাপ্তি আর নির্লিপ্ততার ক্ষণ পার করছি এ বেলা ও বেলা করে। ভালো বাসা এমনই দরজা আমন্ত্রণ ছাড়া ঢোকাই যায়আরও পড়ুন

কবিতা

নাজমীন মর্তুজা

বসন্ত

বসন্তের কাঁটা কি সেখানে থমকে গেছে যে সময়কে স্মৃতি বন্দি করে রেখে এসেছি ঝাঁপি ভর্তি ফুল তার তলে দু-হাতের আবদার আঙুল ছুঁয়ে, চোখের তারায় ঠোঁটের কোনে। এই সেইবসন্ত, যে উৎসবেআরও পড়ুন

কবিতা

নাজমীন মর্তুজা

টুকে নিচ্ছি একখন্ড সময়ের আলেখ্য

টুকে নিচ্ছি সাধনের ভাঁজে অমিমাংসিত প্রেম চলনহীন পা হড়কে যাচ্ছে আমার টুকে নিচ্ছি নতজানু হবার অজস্র অজুহাত কখন কি কাজে লাগে টুকে নিচ্ছি অসমাপ্ত সংলাপ ক্রুশকাঠে পেরেক চিহ্ন মনের ডেরায়আরও পড়ুন